সিপিএ মার্কেটিং কী? সিপিএ মার্কেটিং করে আয় করুন।

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি সকলে অনেক ভালো আছেন। আজকে আমি আপনাদের সাথে সিপিএ মার্কেটিং কী এবং কিভাবে করবেন সেই বিষয় নিয়ে একটি পোস্ট নিয়ে হাজির হয়েছি। তো চলুন দেখে নেই সিপিএ মার্কেটিং কি এবং কিভাবে করবেন।

 

যদি আপনি অনলাইন থেকে টাকা উপার্জন করার কথা ভেবে থাকেন তাহলে নিশ্চয়ই আপনি একবার না একবার সিপিএ মার্কেটিং এর কথা শুনে থাকবেন। এটি ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক বড় একটি শাখা ধরে রয়েছে। আজকে আমরা এই পোস্ট এ সিপিএ মার্কেটিং সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

সিপিএ মার্কেটিং কী?
সিপিএ মার্কেটিং কী?

সিপিএ মার্কেটিং কী?

সিপিএ শব্দটি শুনলেই মনে ইচ্ছে যাগে এর পূর্ণরূপ কি তা জানার। সিপিএ (CPA) এর পূর্ণ রুপ হলো “Cost Per Action” মানে প্রতিটা কাজের বিনিময়ে কমিশন। যদি আপনাকে একটি কাজ দেওয়া হয় এবং আপনি সেই কাজটি সঠিক সময়ে সঠিকভাবে করে দিতে পারেন, তাহলে আপনাকে দেওয়া হবে একটি নির্দিষ্ট কমিশন। এটাই হলো মূলত সিপিএ মার্কেটিং।

অনেকেই সিপিএ মার্কেটিং কে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর সাথে গুলিয়ে ফেলেন। তবে এর যথেষ্ট কারণ ও আছে। সিপিএ মার্কেটিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং অনেকটা প্রায় একই ধরণের কাজ। তাও এদের মধ্য যথেষ্ট পার্থক্য রয়েছে। নিম্নে আমরা সিপিএ মার্কেটিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মধ্যকার পার্থক্য নিয়ে আলোচনা করছি।

 

এফিলিয়েট মার্কেটিং এবং সিপিএ মার্কেটিং এর পার্থক্য

এফিলিয়েট মার্কেটিং এর একটি শাখা বলা হয় সিপিএ মার্কেটিং কে। এর কারণ হলো এই দুটি কাজের ধরণ অনেক টা একই। তবে এদের মধ্যকার পার্থক্য ও আছে। নিম্নে আমরা সিপিএ মার্কে টিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং এর মধ্যকার পার্থক্য নিয়ে কথা বলি চলুনঃ

এফিলিয়েট মার্কেটিং
এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে গেলে আপনাকে প্রথমে একটি পণ্য কিংবা সেবা কে প্রচার করতে হবে। এবং শুধু এটুকু করলেই হবে না সেই পণ্য বা সেবাকে বিক্রি করতে হবে। এটি না করলে আপনারা আপনারা কোনো কমিশন পাবেন না। আর কমিশন না পেলে এটি থেকে কোনো আয় ও হবে না।

সিপিএ মার্কেটিং
এফিলিয়েট মার্কেটিং এর থেকে সিপিএ মার্কে টিং এর কাজ করাটা অনেক সহজ। এই সিপিএ মার্কেটিং কাজ করতে গেলে আপনাকে বেশি কিছু করতে হবে। আপনার সাবমিট করা ফর্ম টি কেউ যদি ডাউন লোড করে পণ্য কিনুক আর না কিনুক আপনি পেয়ে যাবেন কমিশন। এ দিক থেকে দেখতে গেলে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর থেকে সিপিএ মার্কে টিং করে আয় করাটা অনেক সহজ।

 

সিপিএ মার্কেটিং কিভাবে কাজ করে

সহজ ভাষায় বলতে গেলে সিপিএ মার্কে টিং হলো এমন একটি জিনিস যেটা আপনি শুধুমাত্র প্রচার করেই নিয়ে নিতে পারবেন একশন বা কমিশন। এর জন্য আপনাকে কোনো কিছু বিক্রি করিয়ে দেওয়ার কোনো প্রয়োজন হবে না। আপনারা ইন্টারনেটে যদি একটু খোজাখুজি করেন তবে এমন অনেক এডস কোম্পানি রয়েছে যাদের কাজ হচ্ছে কোনো একটি বা একাধিক পণ্যর প্রচার করানো।

এখন তো আবার অনেকে বিজনেস কোম্পানী ও রয়েছে যারা বিভিন্ন এডস কোম্পানী এর সাথে যুক্ত হয়ে তাদের পণ্যর প্রচার করে সিপিএ মার্কে টিং এর মাধ্যমেও টাকা আয় করছে। আর এর বিনিময়ে কিন্তু এডস কোম্পানীর কাছ থেকে বিজনেস কোম্পানী বেশ ভালো অর্থ নিয়ে থাকে।

আপনি যদি সিপিএ মার্কে টিং করতে চান তবে আপনাকে এই সব এডস কোম্পানীর হয়েই কাজ করতে হবে। অর্থাৎ আপনি যদি সিপিএ মার্কে টিং করে টাকা আয় করতে চান তো এই সব এডস নেটওয়ার্ক কোম্পানী দের পণ্যর প্রচার করে দিতে হবে। এর বিনিময়ে আপনারা পাবেন নির্দিষ্ট অর্থ।

এই সিপিএ কাজ করতে হলে আপনাকে প্রথমে এই এডস নেটওয়ার্ক এ রেজিস্ট্রার করতে পাবলিশার হিসেবে। তার পর আপনার যদি কোনো এপ, ওয়েবসাইট, ইউটিউব চ্যানেল বা অন্যান্য কিছু থাকে যেখানে এডস দেওয়া সম্ভব সে সকল যায়গায় আপনারা আপনাদের ভিজিটর বা ট্রাফিক দারা এই সিপিএ করতে পারবেন। আর কাজের সাথে সাথেই আপনার একাউন্টে কমিশন জমা হতে থাকবে।

আরো পড়ুনঃ Redmi Note 10 ফোনের সম্পূর্ণ বাংলা রিভিউ

 

সিপিএ মার্কেটিং করতে কী কী লাগে?

যেহেতু সিপিএ মার্কেটিং এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং প্রায় একই রকম তাই এই কাজ গুলো করতে এফিলিয়েট মার্কেটিং করতে যা যা লাগে এই কাজ করতেও আপনার ওই জিনিস গুলোর ই দরকার হবে। তাও আমি বলে দিচ্ছি কি কি জিনিসের প্রয়োজন হবে,

১. সর্বপ্রথম আপনার যা থাকতে হবে তা হলো ট্রাফিক বা ভিজিটর সম্পন্ন একটি ওয়েবসাইট, এপ কিংবা ইউটিউব চ্যানেল। যেখানে আপনি আপনার সিপির মার্কেটিং এর লিংক শেয়ার করতে পারবেন।

২. এবার আপনাকে ভালো মানের একটি সিপিএ এডস নেটওয়ার্ক এর সাথে যুক্ত হতে হবে এবং সেখান রেজিস্ট্রার করতে হবে একজন পাবলিশার হিসেবে। এই কাজের জন্য সব থেকে ভালো যে নেটওয়ার্ক আছে তা হলো গুগল এডনেটওয়ার্ক।

৩. এবার হলো মেইন কাজ। এর জন্য দরকার হবে আপনার দক্ষতার। আপনাকে যে পণ্য গুলোর এডস দেওয়া হবে সেগুলো নিয়ে ভালো মানের রিভিউ দিতে হবে। যেতে ভিজিটর রা সেখানে ক্লিক করে। আর সেখানে ক্লিক করলেই আপনি পেতে থাকবেন ভালো মানের কমিশন।

৪. কাজ গুলোর বিনিময়ে আপনি কিভাবে টাকা নিবেন তা নির্ভর করে আপনার উপর। আপনি যদি বাংলাদেশি কোনো এডস নেটওয়ার্ক থেকে কাজ করেন তাহলে পেমেন্ট অবশ্যই আপনি বিকাশ, নগদ, রকেট কিংবা ব্যাংক মানি ট্রান্সফারের মাধ্যমে নিতে পারবেন। কিন্তু যদি বিদেশি কোনো নেটওয়ার্ক থেকে কাজ করেন তো আপনি পেমেন্ট শুধু মাত্র পেপাল এবং ব্যাংক মানি ট্রান্সফার এর মাধ্যমে নিতে পারবেন।

হ্যা, এটুকুতেই সম্ভব। আপনার যদি এই জিনিস গুলো থাকে তাহলে আপনাকে সিপিএ মার্কেটিং এর দুনিয়ায় স্বাগতম। এই জিনিস গুলো থাকলে আপনি খুব সহজেই এই কাজ করে টাকা আয় করতে পারবেন।

সিপিএ মার্কেটিং করে আয় করার সহজ উপায়
সিপিএ মার্কেটিং করে আয় করার সহজ উপায়

সিপিএ মার্কেটিং অফার কোথায় পাবো

নিশ্চয়ই আপনার মাথায় এখন একটি প্রশ্ন আসছে যে এই করার জন্য অফার গুলো আমি কোথায় পাবো? তাই না! আমি তো আগে আপনাদের কে বলেছিলাম যে, সিপিএ মার্কেটিং করার জন্য আপনারা যে নেটওয়ার্ক গুলো পাবেন সেই সব নেটওয়ার্ক দের বলা হবে সিপিএ মার্কেটপ্লেস।

আর এখন অনলাইন যুগ। এখন অনলাইনে এরকম হাজার হাজার সিপিএ মার্কেটপ্লেস আছে, যেখান থেকে আপনি রেজিস্ট্রেশন করেই কাজ শুরু করে দিতে পারেন।

নিচে আমি কিছু সিপিএ মার্কেটপ্লেস গুলো দিচ্ছি যেগুলো থেকে সহজেই আপনারা একাউন্ট ভেরিফাই করে কাজ শুরু করে দিতে পারেন।

১. Adworkmedia.com
২. Cpalead.com
৩. Cpagrip.com
৪. Ad4date.com

উপরে দেওয়া সাইট গুলো ছাড়াও অনলাইনে আরো অনেক সিপিএ মার্কেটপ্লেস আছে যেগুলো থেকে কাজ করে টাকা আয় করা যায়। তবে এখান থেকে আমার যে সাইট গুলো বেশি ভালো লাগে এবং তারাতারি একাউন্ট ভেরিফাই হয় আমি সেই সাইট গুলোই আপনাদের সাথে শেয়ার করেছি।

 

একটি কথা মনে রাখবে সকল কাজেই পরিশ্রমের দরকার হয়। তাই একটি কাজ কঠিন মনে হলে সেটাকে ফেলে রেখে দিবেন না। সেই কাজ একটু ধৈর্য নিয়ে করলেই খুব সহজেই কাজটি সম্পন্ন করা যায়। তাই সব কাজ করার সময় একটু ধৈর্য রাখবেন। বিশেষ করে প্রতিটা কাজের প্রথম দিকে।

 

তো প্রিয় বন্ধুরা আশা করছি আপনাদের কাছে আজকের এই পোস্ট টি ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কিন্তু কমেন্ট করে জানাবেন। এবং আমাদের সাইটে এরকম আরো অনেক হেল্পফুল পোস্ট রয়েছে সেগুলো পড়তে চাইলে আমাদের সাইট টি একবার ভিজিট করুন। আর আজকের মতো এখানেই বিদায়, ভালো থাকবেন সুস্থ্য থাকবেন।

ট্যাগঃ সিপিএ মার্কেটিং

Leave a Reply

Your email address will not be published.