এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস যা আপনার প্রয়োজন

হ্যালো বন্ধুরা আশা করি আপনারা সকলে ভালো আছেন। আপনাদেরকে আবারো আমাদের সাইটে আমার পক্ষ থেকে আন্তরিক স্বাগতম জানাই। আজকের পোস্ট এ আমি আপনাদের সাথে জিমেইল আইডির পাসওয়ার্ড রিকোভার করার নিয়ম ২০২২ এই বিষয় টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো। তো চলুন দেরি না করে পোস্ট টি শুরু করা যাক।

 

এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস
এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস

 

এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস

বর্তমানে প্রায় সকল এন্ড্রয়েড ফোন গুলো তে ই প্রায় অধিকাংশই কম্পিউটার এর মতো ফাংশনালিটি পাই আমরা। অনেক সময় তো আবার কিছু কিছু এন্ড্র‍য়েড ফোনের র‍্যাম ও স্টোরেজ কম্পিউটার এর থেকেও বেশি হয়ে থাকে। এই সব কিছুই ব্যবহার কারীর চাহিদা হিসাবে মোবাইল কোম্পানী তৈরি করে থাকে।

কিন্তু এত শক্তিশালী ডিভাইস যদি একজন ব্যবহার কারী সঠিক ভাবে ম্যানেজ করতে না পারে তাহলে ঘটে যেতে পারে বড় ধরণের একটি বিপত্তি। আজকের পোস্ট এ তাই আমি আপনাদের সাথে এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস কয়েকটি শেয়ার করবো যে গুলো না করলে আপনার ফোনের একটি বড় ক্ষতি হতে পারে। তো চলুন আমরা দেখে নেই সেগুলো। নিম্নে আমি এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস কয়েকটি আপনাদের সাথে শেয়ার করছি।

 

নিয়মিত আপডেট

অনেকে বেশি ডাটা বা এমবি খরচ এর ভয়ে নিজের ফোন কে আপডেট করেন না। আবার অনেকে আছেন এটা না করলে কিছু হবে না ভেবে স্কিপ করে যান। এটা মটেও ঠিক না। মাঝে মাঝে এই আপডেট না করলে ফোনের এপস গুলোতে বিভিন্ন ভুল-ক্রুটি ধরা পড়ে। এবং এপস এর কোডিং এও ঝামেলা হতে পারে।

আর আপনার এই সমস্যা কে কাজে লাগিয়ে সাইবার হামলাকারীরা খুব সহজেই আপনার ফোন থেকে তথ্য চুরি করে নিতে পারে। এবং পড়ে সেই তথ্য দিয়ে আপনাকে ব্লাকমেইল করতে পারে। তাই আমাই বলবো সব সময় নতুন কোনো আপডেট আসলেই নিজেই ফোনকে আপডেট করে নিবেন। তাছাড়া আপডেট করলে ফোনে অনেক নতুন নতুন ফিচার ও পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ জিমেইল আইডির পাসওয়ার্ড রিকোভার করার নিয়ম ২০২২

ফোন লক করে রাখুন

আমাদের মধ্য অনেকেই আছেন যারা ফোন কে লক করে রাখেন না শুধু মাত্র আলসেমি এর জন্য। এটা কিন্তু মটেও ঠিক না। এটা একটা ভয়ঙ্কর খারাপ অভ্যাস। মনে করুন, আপনার ফোন টি চুরি হয়ে গেছে কিংবা কোনো ভাবে আপনার কাছ থেকে অন্য হাতে চলে গেছে।

এই মূহুর্তে যদি আপনার ফোন টি পাসওয়ার্ড সেট করা থাকে তাহলে কিন্তু যার কাছে ফোন রয়েছে সে ফোন টা কে আনলক করতে পারবেন। হয়তো চোর রা ফোন কে কম্পিউটার এর দোকানে গিয়ে রিসেট করে আনবে। এতে কিন্তু ফোনের সব তথ্য মুছে যাবে। মানে সে আপনাকে কোনোভাবে ব্লাকমেইল করতে পারবে না।

ফোন যাক কিন্তু আপনাকে সে ব্লাকমেইল করে সমস্যায় ফেলতে পারবে না। কিন্তু যদি আপনার ফোন আনলক থাকে তাহলে আপনাকে সেই ব্যক্তি আপনার তথ্য দিয়ে আপনাকে ব্লাকমেইল করতেও পারবে আবার ফোন ও গেলো। কথাটা এমন হলো, আমও গেলো ছালাও গেলো।

এখন ফোনে পিন লক, পাসওয়ার্ড লক, প্যাটার্ন লক, ফিঙ্গারপ্রিন্ট লক, ফেস লক এর মতো কঠিন সব লক বের হয়েছে আপনার ফোন কে সুরক্ষিত রাখার জন্য। তাহলে আপনি কেন লক ব্যবহার না করে অরক্ষিত থাকবেন!

তবে পিন লক, পাসওয়ার্ড লক ও প্যাটার্ন ব্যবহারে একটি সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি আর তা হলো, সেগুলোর এমন দিবেন যেটা আপনার কাছে খুব ইজি ও আপনি মনে রাখতে পারবেন কিন্তু অন্যরা এটা কল্পনাও করতে পারবে না।

 

অফিসিয়াল সাইট/এপ থেকে এপস ডাউন লোড

অনেকেই আছেন যারা যে কোনো থার্ড পার্টি এপ কিংবা ওয়েব সাইট থেকেই এপ ডাউন লোড করেন। এটাও কিন্তু একটি খারাপ অভ্যাস। মাঝে মাঝে আনফিসিয়াল সাইট বা এপ থেকে এপ ডাউন লোড করলে ফোনে ম্যালওয়্যার ভাইরাস সহ আরো অনেক ক্ষতিকর ভাইরাস ফোনে ঢুকে যেতে পারে।

এতে আপনার ফোনের অনেক ক্ষতি হতে পারে। তাই আমি বলবো আপনারা সব সময় ভালো ও অফিসিয়াল এপ কিংবা সাইট থেকেই এপ ডাউন লোড করবেন। এর জন্য আমি বলবো আপনারা সব সময় গুগল প্লে স্টোর থেকে এপ ডাউন লোড করবেন।

কারণ প্লে স্টোরে এমন কোনো এপ বা গেম নেই যেটাতে কোনো ভাইরাস আছে। এমন কোনো কিছু থাকলেই প্লে স্টোর সেই এপ কে ব্যান করে দেয়। এটি ইউজারদের জন্য একটি সুরক্ষিত এপ। এটি ব্যবহার করলে কোনো ক্ষতি হবে না আপনার।

এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস
এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস

পাসওয়ার্ড ম্যানেজমেন্ট

অনেকেই ফোনে বিভিন্ন ধরনের ওয়েব সাইটে লগ ইন করে। ওয়েব সাইট এ আইডি খোলেন যেমনঃ ফেসবুকে আইডি খোলা, ইমেইলে আইডি খোলা। মাঝে মাঝে অনেকে এই আইডি খোলার তথ্য ভুলে যান এবং সমস্যা পড়েন। তাই অনেকেই এই লগ ইন তথ্য ফোনের নোট প্যাড কিংবা অন্য কোনো এপে লিখে রাখেন।

এতে আপনার ক্ষতি হতে পারে। এর ফলে আপনার ফোন অন্য কারো হাতে গেলে, সে যদি সেটা দেখে ফেলে এবং তার উদ্দেশ্য খারাপ হলে আপনার বড় ধরণের ক্ষতি হতে পারে। তাই আমি বলবো সব সময় ফোনে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করার পাশাপাশি সমস্ত এপ গুলোকেও লক করে রাখবেন। সব এপ কে লক করার জন্য প্লে স্টোরে বিভিন্ন এপ পাবেন।

 

Read Also – Cpa Marketing 

ব্যবহার না করা এপ আনইনস্টল করুন

যদি এমন টা হয় যে, আপনি একটি এপ ব্যবহার করেন না তাও সেটি ফোনে ইন্সটল করে রেখেছেন তবে সব থেকে ভালো যেটি হয় সেটি হলো আপনি সেই এপ টি কে আন ইন্সটল করে দিন। এর কারণ হলো ইন্সটল করা এপ ফোনের বিভিন্ন পারমিশন চায়। এর ফলে আপনার ফোন টি হ্যাক হওয়ার ও অনেক সম্ভাবনা আছে।

আর আপনার ফোনের যদি র‍্যাম ও স্টোরেজ কম হয়, তাহলে তো কথায় নেই। এপটি আন ইন্সটল করে দিন। কারণ এটি আপনার ফোনের অনেক র‍্যাম ও স্টোরেজ খাবে এবং ফোন কে দুর্বল করে দিবে। যার ফলে মাঝে মাঝেই ফোন হ্যাং করবে।

 

অপ্রয়োজনীয় কানেকশন অফ রাখুন

যখন আপনার ফোনে কোনো কানেকশন যেমনঃ ডাটা, ওয়াইফাই, হটস্পট, ব্লুটুথ ইত্যাদি কানেকশন এর কোনো দরকার হচ্ছে না তখন সেটিকে অফ করে রাখুন। এতে আপনার তথ্য হ্যাক হওয়ার চাঞ্চ কম থাকবে। আর আপনার ফোনের ব্যাটারি ও কম খাবে। এতে আপনার ব্যাটারি এর লাইফ ও বেশি দিন হবে।

 

তো প্রিয় বন্ধুরা আশা করছি আপনাদের কাছে আজকের এই এন্ড্রয়েডের গুরুত্বপূর্ণ টিপস পোস্ট টি ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই কিন্তু কমেন্ট করে জানাবেন। এবং আমাদের সাইটে এরকম আরো অনেক হেল্পফুল পোস্ট রয়েছে সেগুলো পড়তে চাইলে আমাদের সাইট টি একবার ভিজিট করুন। আর আজকের মতো এখানেই বিদায়, ভালো থাকবেন সুস্থ্য থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.